পুরুলিয়ায় মাওবাদী হামলা রুখতে মহড়া সিআরপিএফের

সুমিত বিশ্বাস: সিআরপিএফ ক্যাম্পের ভিতরেই ঝুলছে সিপিআই (মাওবাদী)-দের লাল ব্যানার। যেখানে লেখা ‘গরিবের জমি কেড়ে নিতে দেব না। কমঃ বিমল দা’। তার পাশ দিয়েই চলে গিয়েছে ল্যান্ড মাইনের তার। কিন্তু, বোঝার উপায় নেই। তারের ওপরেই যে ঝরে পড়া শুকনো পাতা বিছিয়ে রাখা। যেমন ভাবে জঙ্গলে থাকে এই ঝরা পাতার মরশুমে। সেইসঙ্গে ক্যামোফ্লেজ হিসেবে মৃত অবস্থায় পড়ে বন্দুকধারী মাওবাদীদের দেহ। বা গাছের আড়াল থেকে বন্দুক নিয়ে মুখ কাপড়ে ঢাকা মাও স্কোয়াড সদস্য। এছাড়া ছড়িয়ে ছিটিয়ে একাধিক লাল পতাকা।

পিছনের কনভয়ে থাকায় পুলওয়ামা হামলায় অক্ষত চন্দ্রকোণার সেনা

শ্রীকান্ত পাত্র, ঘাটাল : রাখে হরি, মারে কে? প্রবাদবাক্যটি একেবারের অক্ষরে অক্ষরে মিলে গেল পশ্চিম মেদিনীপুরের সেনা জওয়ান মঙ্গল হেমব্রমের জীবনে। জঙ্গি দল তাঁর কোনও ক্ষতিই করতে পারল না। অক্ষত রয়ে গেলেন কাশ্মীরে সিআরপিএফের ১১৫ নম্বর ব্যাটেলিয়ানের জওয়ান মঙ্গল হেমব্রম। বৃহস্পতিবার পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার টার্গেট সেনা কনভয়ের পিছনের সারিতে থাকার ফলে প্রাণে বেঁচে গিয়েছেন তিনি।
‘দেশরক্ষায় অন্য সন্তানকেও উৎসর্গ করব’, শপথ শহিদের বাবার

‘গাল্লি বয়’-এর ব়্যাপে কতটা মজল দর্শক?

বিশাখা পাল: পরিচালক যখন জোয়া আখতার, তখন দর্শকের চাহিদাও থাকে তুঙ্গে। যে পরিচালকের থেকে ‘জিন্দেগি না মিলেগি দোবারা’ বা ‘লাক বাই চান্স’-এর মতো ছবি অতীতে পাওয়া গিয়েছে, তাঁর থেকে আরও ভাল ছবি তো আশা করা যেতেই পারে। এই প্ল্যাটফর্মে দাঁড়িয়ে বলা যায় অনুরাগীদের এবারও খুব একটা নিরাশ করেননি জোয়া।

ব্যাগেজ স্ক্যানার থেকে বের হল মেয়ে, হতবাক নিরাপত্তাকর্মীরা

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক : বাবা-মা ব্যস্ত ছিল সঙ্গে থাকা ব্যাগগুলির দিকে খেয়াল রাখতে। এই সুযোগে ব্যাগেজ স্ক্যানারে ঢুকে পড়ে পাঁচ বছরের একরত্তি মেয়ে। বিষয়টি দেখতে পেয়ে চোখ কপালে ওঠে সেখানে উপস্থিত নিরাপত্তাকর্মীদের। শেষ পর্যন্ত সবার চিন্তার অবসান ঘটিয়ে অক্ষত অবস্থাতেই স্ক্যানারের বাইরে বের হয়ে আসে ছোট্ট ওই শিশুকন্যা। হতবাক করা এই ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব চিনের শানডং প্রদেশের জিনান এলাকার একটি রেল স্টেশনে।

লক্ষ্য কৃষকদের মনজয়, এবার সিঙ্গুরে পদযাত্রা বিজেপির

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: লোকসভা ভোটের আগে কৃষকদের মন পেতে তৎপর বিজেপি। জনসংযোগে গেরুয়া শিবিরের অন্যতম লক্ষ্য এখন, দেশের কৃষক সম্প্রদায়। দেশের কিছু অংশের কৃষক সমস্যা বিজেপির উদ্বেগ বাড়িয়েছে। সেই পরিস্থিতিতে কৃষকের মন পেতে কেন্দ্রীয় বাজেটে কৃষক কল্যাণ প্রকল্পের ঘোষণা করে লোকসভা ভোটের আগে মাস্টারস্ট্রোক দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি। এবার ভোটের আগে কৃষকদের ঘরে ঘরে সেই কেন্দ্রীয় প্রকল্পের প্রচারকে নিয়ে যেতে চান মোদি,অমিত শাহরা। লক্ষ্য, কৃষকদের সমর্থনকে দলের ভোটবাক্সে প্রতিফলিত করা। তাই কৃষকদের জনসমর্থন আদায়ে দলের কৃষক সংগঠন কিষাণ মোর্চাকে পথে নামাচ্ছে বিজেপি। বিভিন্ন রাজ্য থেক