বউদির সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক, পথের কাঁটা সরাতে দাদাকে খুন ভাইয়ের

শাহজাদ হোসেন, ফরাক্কা: বউদির সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জের। পথের কাঁটা সরাতে খুড়তুতো দাদাকে খুনের ঘটনায় এক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষককে গ্রেপ্তার করল মুর্শিদাবাদের (Murshidabad) সাগরদিঘি থানার পুলিশ। ধৃত আলি জিন্নাহ সাগরদিঘির বাড়ালার হোসেনপুরের বাসিন্দা। সে হোসেনপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক। শনিবার রাতে সাগরদিঘির পুলিশ তাঁকে গ্রেপ্তার করে।
মঙ্গলবার সকালে সাগরদিঘির হোসেনপুরে মুরগি ফার্মের মালিক বছর চল্লিশের নজরুল শেখের রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার হয়। এই ঘটনায় সাগরদিঘি থানায় খুনের অভিযোগ দায়ের করেন মৃত নজরুল শেখের খুড়তুতো ভাই আলি জিন্নাহ। ঘটনার তদন্ত শুরু করে পুলিশ। তদন্তে নেমে সাগরদিঘি থানার পুলিশ প্রথমে আলি জিন্নাহকেই জেরা করে। জেরায় আলি জিন্নাহর কথায় মেলে একাধিক অসঙ্গতি। তাতেই পুলিশের সন্দেহ হয়। আলি জিন্নাহকে আটক করে দফায় দফায় জেরা করা হয়। অবশেষে আলি জিন্নাহ খুড়তুতো দাদাকে খুনের কথা স্বীকার করে।
[আরও পড়ুন: প্রেমিক ও তার চার সঙ্গী মিলে কিশোরীকে ‘গণধর্ষণ’, মালদহে ব্যাপক চাঞ্চল্য]
জঙ্গিপুরের পুলিশ সুপার ওয়াই রঘুবংশী জানান, নজরুল শেখকে খুনের ঘটনায় অভিযোগকারী আলি জিন্নাহকেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পুলিশ সূএে জানা গিয়েছে, বাড়ালার হোসেনপুরের বাসিন্দা নজরুল শেখ। পেশায় পোলট্রি ফার্মের মালিক। রহস্যজনকভাবে খুন হন তিনি। মাথায় ভারি আঘাতের চিহ্ন মেলে। পিঠেও আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়। তদন্তে পুলিশ জানতে পারে, মৃত নজরুলের স্ত্রীর সঙ্গে খুড়তুতো ভাই আলি জিন্নাহর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল। আলি জিন্নাহ পেশায় প্রাথমিক শিক্ষক। প্রেমের পথের কাঁটা সরাতে আলি জিন্নাহ পরিকল্পনামাফিক দাদা নজরুলের পোল্ট্রি ফার্মে যায়। ঘুমের ওষুধ খাওয়ানোর পর তাঁকে ভারী কিছু দিয়ে আঘাত করে আলি জিন্নাহ। মৃত্যু নিশ্চিত করতে তাঁকে তড়িদাহতও করা হয় বলে পুলিশের অনুমান।   
[আরও পড়ুন: আসানসোলে জাতীয় সড়কে দুই গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষে আগুন, ভয়াবহ দুর্ঘটনায় মৃত ৩]