লকডাউনে কড়া হচ্ছে বাংলাদেশ, বাড়ি থেকে বের হতে লাগবে মুভমেন্ট পাস

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা সংক্রমণ রুখতে লকডাউনের পথে হেঁটেছে বাংলাদেশ। আর সেই লকডাউন যাতে নিয়ম মেনে পালন করা হয় তার জন্য এবার বিশেষ পদক্ষেপ করা হল। জানানো হয়েছে, জরুরি প্রয়োজনে বাড়ি থেকে বের হওয়া ও ফেরার জন্য পুলিশের বিশেষ অ্যাপ ব্যবহার করে আলাদা মুভমেন্ট পাস নিতে হবে।
বুধবারই কড়া লকডাউন ওপার বাংলায়। আর সেদিন থেকেই আগামী আট দিনের লকডাউন চলাকালীন এই পাস ব্যবহার করতে হবে। তবে সংবাদমাধ্যমের কর্মীদের এই পাস লাগবে না বলেই জানানো হয়েছে। তাঁদের কর্মস্থলের পরিচয়পত্রই মুভমেন্ট পাস হিসেবে গণ্য করা হবে। লকডাউনে সাধারণের যাতায়াত নিয়ন্ত্রণ করতে এই বিশেষ অ্যাপটি মঙ্গলবারই উদ্বোধন করে পুলিশ।
[আরও পড়ুন: বাংলাদেশে লকডাউনে কর্মহীন পরিবার পিছু ৫০০ টাকা ও খাদ্যশস্য দেবে সরকার]
অ্যাপটি আত্মপ্রকাশ করতেই আবেদনের ঢল নামে। ফলে মঙ্গলবার বেশ খানিকক্ষণের জন্য (https://movementpass.police.gov.bd) ওয়েবসাইটটি হ্যাং হয়ে যায়। পরে সার্ভারের সংখ্যা বাড়িয়ে তা স্বাভাবিক করা হয়। পুলিশ সদর দপ্তরের তরফে জানানো হয়েছে, এদিন সন্ধে সাড়ে ৬টা পর্যন্ত মুভমেন্ট পাসের জন্য ৬ লাখ আবেদন জমা পড়েছে।
এবার প্রশ্ন হল, কীভাবে এই পাসটি পাবেন? ওয়েবসাইটে ঢুকে প্রথমে একটি সক্রিয় মোবাইল নম্বর দিতে হবে। এরপর কোন জয়গা থেকে কোথায় যাবেন, তা জানতে চাওয়া হবে। সেই সব তথ্য একে একে দিতে হবে। এরপর আবেদনকারীর একটি ছবি আপলোড করে আবেদন জমা দিতে হবে। আবেদনকারীর কাছে ফিরতি মেল কিংবা মেসেজ যাবে। সেটি ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে নিতে হবে। প্রিন্ট কপিটিই মুভমেন্ট পাস হিসেবে গণ্য করা হবে। লকডাউন মেনে করোনার বিরুদ্ধে জয় পেতে সকলের সহযোগিতা চেয়েছেন আইজিপি বেনজির আহমেদ। বলেন, “বুধবার থেকে আমরা রাস্তায় এবং বাইরে বিনা প্রয়োজনে কাউকে দেখতে চাই না। চাপ প্রয়োগ করে নয়, আসুন নিজেদের উদ্যোগেই এই দায়িত্ব পালন করব। এসব না মানলে সমগ্র বাংলাদেশকে আইসোলেশনে চলে যেতে হবে।”
[আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত বাংলাদেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া]