কাশী বিশ্বনাথ-জ্ঞানবাপী মসজিদ মামলায় বারাণসী আদালতের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ ওয়াকফ বোর্ডের

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কাশী বিশ্বনাথ মন্দির-জ্ঞানবাপী মসজিদ মামলায় বারাণসীর আদালতের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে এলাহাবাদ হাইকোর্টের দ্বারস্থ হল সুন্নি সেন্ট্রাল ওয়াকফ বোর্ড। গত ৮ এপ্রিল মামলায় ওঠা অভিযোগকে খতিয়ে দেখতে পুরাতাত্ত্বিক সর্বেক্ষণকে (ASI) পাঁচ সদস্যের কমিটি তৈরি করতে নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। এবার তার বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে গেল সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড।
প্রায় তিন দশক আগে এক মামলায় অভিযোগ করা হয়েছিল, মুঘল সম্রাট ঔরঙ্গজেব কাশীর বিশ্বনাথের মন্দির (Kashi Vishwanath) ভেঙে জ্ঞানবাপী মসজিদ (Gyanvapi Masjid) নির্মাণ করেছিলেন। এই অভিযোগ ঠিক কি না, তা খতিয়ে দেখতেই পাঁচ সদস্যের কমিটি তৈরি করতে পুরাতাত্ত্বিক সর্বেক্ষণকে নির্দেশ দেন ফাস্ট ট্র্যাক কোর্টের বিচারক আশুতোষ তিওয়ারি। আদালতের নির্দেশ, বিশেষজ্ঞ এবং দুই ধর্মে বিশিষ্টদের নিয়ে তৈরি করতে হবে পাঁচ সদস্যের কমিটি। সেই নির্দেশকেই চ্যালেঞ্জ করল ওয়াকফ বোর্ড।
[আরও পড়ুন: ভরতি নেয়নি গুজরাটের হাসপাতাল, চিকিৎসার অভাবে বাঙালি অধ্যাপিকার মৃত্যু!]
তাদের আইনজীবী পুনীতকুমার গুপ্ত সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে জানিয়েছেন, ”আমরা নিম্ন আদালতের ওই নির্দেশের বিরুদ্ধে এলাহাবাদ হাই কোর্টের দ্বারস্থ হয়ে পিটিশন দায়ের করেছি।” তাঁর অভিযোগ, আদালতের ওই নির্দেশ বেআইনি। কেননা বিষয়টি হাই কোর্টের বিচারাধীন রয়েছে। এই পরিস্থিতিতে কী করে নিম্ন আদালত এমন নির্দেশ দিতে পারে বলে প্রশ্ন তুলেছেন তিনি।
উল্লেখ্য, কাশী বা বারাণসীর বিখ্যাত বিশ্বনাথ মন্দিরের গায়েই রয়েছে জ্ঞানবাপী মসজিদ। ঐতিহাসিকদের একাংশের মতে, একাধিকবার বিদেশি হানাদারদের হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত হয় মন্দিরটি। ১৬৬৯ সালে মূল মন্দিরটি দখল করে জ্ঞানবাপী মসজিদ তৈরি করেন মোঘল বাদশাহ ঔরঙ্গজেব। এখনও মসজিদের দেওয়ালে হিন্দু দেবদেবীর ছবি দেখা যায়। অষ্টাদশ শতকে হিন্দুদের আবেগকে মান্যতা দিয়ে মসজিদের কাছেই আজকের বিশ্বনাথ মন্দিরটি তৈরি করেন মারাঠা রাজ্য মালওয়ার রানি অহল্যাবাই হোলকর।
[আরও পড়ুন: বাবরি মসজিদ ধ্বংসে অভিযুক্তদের মুক্তি দেওয়া বিচারপতিকে গুরুত্বপূর্ণ পদ দিল যোগী সরকার]