অন্তঃসত্ত্বাকে উদ্ধার করল গুসকরা পুলিশ

বর্ধমান, ২৬ এপ্রিলঃ অন্তঃসত্ত্বাকে লকডাউনের মাঝে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে। নিরুপায় হয়ে ওই অন্তঃসত্ত্বা বাঁকুড়ার পাত্রসায়ের থানার রাসপূর্ণিমা তলায় মায়ের বাড়ি যাওয়ার জন্য বোলপুর থেকে রেলপথ ধরে হাঁটা শুরু করেন। শনিবার রাতে পূর্ব বর্ধমানের বনপাশ রেল ষ্টেশন থেকে গুসকরা বিট হাউসের পুলিশ তাঁকে উদ্ধার করেন। পাশাপাশি রাতের খাওয়ার বন্দোবস্ত করা হয়। এরপর রবিবার বর্ধমান আদালতে তাঁকে পেশ করা হয়। সিজেএম রতন কুমার গুপ্তা ওই মহিলাকে তাঁর গন্তব্যে পৌঁছে দেওয়ার জন্য গুসকরা বিট হাউসের ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন।
ওই মহিলা গুসকরা বিট হাউস পুলিশের আন্তরিক প্রশংসা করলেও, বোলপুর থানার পুলিশের ভূমিকা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তাঁর অভিযোগ, শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাঁকে তাড়িয়ে দেওয়ার পর, তিনি বোলপুর থানায় গিয়েছিলেন। কিন্তু, বোলপুর থানার পুলিশ তাঁর অভিযোগ নেয়নি। এমনকি বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থাও করেনি। গুসকরা বিট হাউসের ওসি অরুণ সোম জানিয়েছেন, গৃহবধূকে বাঁকুড়ায় তাঁর মায়ের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি এদিনই বোলপুর থানায় জানানো হয়েছে।
পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ৫ মাস আগে বছর ১৮ বয়সী রাজনন্দিনী চট্টোপাধ্যায়ের
বোলপুর থানার মোহনপুরের এক যুবকের সঙ্গে বিয়ে হয়। কর্মসূত্রে তাঁর স্বামী মহারাষ্ট্রে থাকেন। বিয়ের কিছুদিন পর থেকে তাঁর শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাঁকে বাপের বাড়িতে ফিরে যাওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করতে থাকে। পাশাপাশি, তাঁর ওপর নির্যাতন শুরু করে বলে অভিযোগ। শ্বশুরবাড়ির লোকজন মারধোর করে শনিবার সকালে তাঁকে একবস্ত্রে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিয়েছিল।
রাজনন্দিনী জানিয়েছেন, শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে বোলপুর থানায় অভিযোগ জানাতে গেলে, থানায় অভিযোগ জমা নেওয়া হয়নি। লকডাউন মেটার পর তাঁকে যেতে বলা হয়েছিল। বোলপুর থানার কোনও সহায়তা না পেয়ে হতাশ হয়ে, লকডাউন উপেক্ষা করেই বর্ধমানে আসার জন্য বোলপুর থেকে ট্রেন লাইন ধরে হাঁটা শুরু করেন। ক্লান্ত হয়ে বনপাশ রেল ষ্টেশনের কাছে পৌঁছে প্ল্যাটফর্মের কাছে বসেছিলেন। শনিবার রাতে গুসকরা বিট হাউসের পুলিশ সেখান থেকেই তাঁকে উদ্ধার করেন।
The post অন্তঃসত্ত্বাকে উদ্ধার করল গুসকরা পুলিশ appeared first on Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India.